নতুন আধার কার্ড বানান এইভাবে ফ্রী ও ডকুমেন্টস ছাড়াই নতুন আপডেট

Published By: MD 360 NEWS | Updated:

আমাদের দেশের নাগরিক হিসেবে তার পরিচয় পত্র ও প্রমাণ এবং ঠিকানার প্রমান এর জন্য আধার কার্ড অত্যন্ত জরুরী। সেই কারণেই Unique Identification Authority of India (UIDAI) পাঁচ বছরের নিচের শিশুদের জন্য চালু করেছে ‘বাল আধার’।আমরা প্রত্যেকেই জানি যে পাঁচ বছরের নিচের শিশুদের আধার কার্ড বানানোর জন্য বাচ্চার জন্ম সার্টিফিকেট ও অভিভাবকের বিভিন্ন ডকুমেন্ট লাগতো।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

কিন্তু UIDAI সম্প্রতি আধার কার্ড বানানোর প্রক্রিয়া কে আরও সহজ করে দিয়েছে। নতুন নিয়ম অনুসারে বর্তমানে বাচ্চার আধার কার্ড বানানোর জন্য জন্ম সার্টিফিকেট লাগবে না। জন্ম সার্টিফিকেট ছাড়া হসপিটাল ডিসচার্জ সার্টিফিকেটের সাহায্যে নতুন আধার কার্ডের জন্য আবেদন করা যাবে। তবে ডিসচার্জ স্লিপ বা সার্টিফিকেট এর সাথে বাচ্চার বাবা কিংবা মায়ের যেকোনো একজনের আধার কার্ড সহ অন্যান্য ডকুমেন্টস জমা করতে হবে।
কি কি ডকুমেন্টস লাগবে নিম্নে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো…

বাল আধার কার্ড বানানোর জন্য শিশুর কোন বায়োমেট্রিক ডাটার (ফিঙ্গারপ্রিন্ট বা রেটিনা স্ক্যান) প্রয়োজন পড়ে না। আধার কার্ড টি পিতা-মাতার জনতাত্ত্বিক এবং ছবির উপর ভিত্তি করে তৈরি হবে। বাচ্চার আধার কার্ড বানানোর জন্য পিতা মাতার পরিচয় পত্রের প্রমাণ ও ঠিকানার প্রমান লাগবে। পরিচয় পত্রের প্রমান হিসেবে যে সমস্ত ডকুমেন্টসগুলো প্রয়োজনঃ- পাসপোর্ট, প্যান কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ভোটের কার্ড, রেশন কার্ড, আর্মস লাইসেন্স, ভারত সরকার কর্তৃক প্রদত্ত আইডি প্রুফ, একটি শিক্ষিত প্রতিষ্ঠানের ফটো আইডি প্রুফ, এন আর ই জি এ (NRAGA) জব কার্ড, ফটো ক্রেডিট কার্ড, পেনশনার ফটো কার্ড, ফ্রিডম ফাইটার ফটো কার্ড, কিষান ফটো পাসবুক, সিজি এইচএস (CGHS) ফটো কার্ড, ম্যারেজ সার্টিফিকেট, আইনগত ভাবে স্বীকৃতি নাম পরিবর্তনের সার্টিফিকেট, ইসি এইচএস(ECHS) ফটো কার্ড এবং রাজ্য সরকার /কেন্দ্র সরকার/ প্রশাসন কর্তৃক প্রদত্ত প্রতিবন্ধী মেডিকেল সার্টিফিকেট বা ইউনিক আইডি কার্ড ইত্যাদি।উপরে উল্লেখিত যেকোনো একটি ডকুমেন্টস থাকলেই হবে।

ঠিকানা প্রমান পত্রের জন্য কি কি ডকুমেন্টস লাগবে পিতা বা মাতারঃ- অভিভাবকের পাসপোর্ট, ব্যাঙ্ক পাসবুক, ব্যাংক স্টেটমেন্ট বা পাসবুক, পোস্ট অফিসের অ্যাকাউন্টস স্টেটমেন্ট, ভোটার আইডি কার্ড, রেশন কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, PSU কর্তৃক জারি করা সার্ভিস ফটো আইডি কার্ড (ঠিকানা সহ), তিন মাস পুরনো ইলেকট্রিক বিল, তিন মাস পুরনো জলের বিল, তিন মাস পুরনো গ্যাস কানেকশন এর বিল, টেলিফোন লাইনের বিল, হোম ট্যাক্সের রশিদ, ক্রেডিট কার্ড স্টেটমেন্ট, বীমা পলিসির ডকুমেন্ট, স্বাক্ষরিত লেটারহেড (ঠিকানা ও ফটো সহ), অফিস কর্তৃক স্বাক্ষরিত কোম্পানি লেটারহেড ফটো ঠিকানা সহ আর্মস লাইসেন্স,ভারত সরকার কর্তৃক প্রদত্ত আইডি প্রুফ, একটি শিক্ষিত প্রতিষ্ঠানের ফটো আইডি প্রুফ, এন আর ই জি এ (NRAGA) জব কার্ড, ফটো ক্রেডিট কার্ড, পেনশনার ফটো কার্ড, ফ্রিডম ফাইটার ফটো কার্ড, কিষান ফটো পাসবুক, সিজি এইচএস (CGHS) ফটো কার্ড, গাড়ি রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট, ডাক বিভাগ কর্তৃক ফটো, অ্যাড্রেস কার্ড এবং রাজ্য সরকার কর্তৃক জারি করা ফটো সহ জাতীয় অধিবাসীর প্রমাণ ইত্যাদির মধ্যে যেকোনো একটি ডকুমেন্টস থাকলেই হবে।

আধার কার্ড বাননাোর জন্য অনলাইনে বুকিং করুন ফ্রিঃ- দেখুন 

আধার কার্ড অফিসিয়াল ওয়েবসাইট লিংকঃ- ক্লিক করুন